খুশকি দূর করার উপায় - চুলের খুশকি দূর করার ঘরোয়া ১৩টি উপায়

আসসালামু আলাইকুম। প্রিয় পাঠক, আশা করি, আল্লাহ’র অশেষ রহমতে ও তাঁর কৃপায় সবাই ভালো আছেন। শীত চলে এলো। সাধারণত শীতে অধিকাংশ মানুষেরই যে সমস্যা হয়ে থাকে। সেই সমস্যার নাম হলো খুশকি। মাথায় খুশকি হওয়ার কারণ, খুশকি দূর করার উপায় এই সকল বিষয়গুলো নিয়ে এই বিস্তারিত থাকছে এই আর্টিকেলে।
শীতে এই সমস্যা প্রায় সকলেরই হয়ে থাকে, তাই আপনাদের কথা ভেবে আজকে আমি এই পোস্টটি লিখতে বসলাম। এই পোস্টটি পড়লে আপনি জানতে পারবেন খুশকি কি? মাথায় খুশকি হওয়ার কারণ, খুশকি কেন হয়? খুশকির সমস্যা ও সমাধান কি?

চুলের খুশকি দূর করার ঘরোয়া উপায়, খুশকির প্রতিকার ও প্রতিরোধে করণীয় উপায়, মোটকথা খুশকি দূর করার সহজ উপায়। এই সকল বিষয়গুলো নিয়ে চুলের খুশকি দূর করার ঘরোয়া ১৩টি উপায় আলোচনা করা হবে। এই সকল বিষয়গুলো জানতে হলে এই পোস্টটি সম্পূর্ণ পড়ুন।

পেইজ কন্টেন্ট সূচিপত্র? খুশকি দূর করার উপায় - চুলের খুশকি দূর করার ঘরোয়া উপায়

খুশকি কি?

খুশকি কি? খুশকি হলো ত্বকের একটি বিশেষ অবস্থা। এটি সাধারণত মাথার খুলিতে বেশি দেখা যায়। শীতে খুশকির সমস্যা বেশি দেখা যায়। এই সময় মাথার ত্বক শুষ্ক থাকার কারণে চুলকানিও বেশি হয়। এতে মাথার ত্বক থেকে চর্মরেণু শুকিয়ে বা ত্বকের মৃত কোষ আঁশের মতো উঠে আসে ও  ঝড়ে পড়ে। পৃথিবীর প্রায় সকল জায়াগার মানুষই এই খুশকি সমস্যা ভূগে থাকেন।

খুশকি কেন হয়? মাথায় খুশকি হওয়ার কারণ কি?

খুশকি কেন হয়? মাথায় খুশকি হওয়ার কারণ কি? বিভিন্ন কারণেই খুশকি হয়ে থাকে। এর মধ্যে খুশকির একটি খুব সাধারণ কারণ হিসেবে বলা যায় সেবোরেইক ডারমাটাইটিস বা ত্বকের তৈলাক্ত ও চুলকানিপ্রবণ অবস্থাকে।

মাথার ত্বকে মেলাসেজিয়া নামক এক ধরনের ছত্রাক থাকে। এই মেলাসেজিয়া মাথার ত্বকে নতুন কোষ জন্মতে সাহায্য করে। মাথায় তেলতেলে ভাব ও ময়লা জমার কারণে মাথার ত্বকে জন্মানো অতিরিক্ত কোষগুলো মারা যায় ও ঝড়ে পড়ে।

মাথার ত্বক শুষ্ক হওয়ার কারণে খুশকি হয়। সাধারণত শীতকালে আবহাওয়ার আর্দ্রতা কম থাকে, ফলে দেহের ত্বকের সাথে সাথে মাথার ত্বকও শুষ্ক হয়ে যায়। এই শুষ্ক ত্বকের কারণে খুশকি দেখা দেয় বেশি। এখন নিশ্চয় বুঝতে পারছেন মাথায় খুশকি হওয়ার কারণ কি?

মাথায় খুশকি হওয়ার কারণ হিসেবে আরো বলা যায় যে, পর্যাপ্ত পরিমাণ চুল না আঁচড়ার কারণে ও একজনের চিরুনি আরেকজন ব্যবহারের ফলে খুশকি হয়। আর চুল পড়ার কারণ হিসেবে হিসেবে এই খুশকি একটি কারণ হিসেবে ধরা যায়। চিরতরে খুশকি দূর করার উপায় কি? তা জানার জন্য এই পোস্টটি সম্পূর্ণ পড়ুন।

খুশকি দূর করার উপায় - চুলের খুশকি দূর করার ঘরোয়া উপায়

খুশকি দূর করার উপায় ও চুলের খুশকি দূর করার ঘরোয়া উপায় নিয়ে বিস্তারিত থাকছে আজকের এই আর্টিকেলে। মাথার ত্বকে এলার্জি,খুশকি থেকে মুক্তি পাওয়ার উপায়, চিরতরে খুশকি দূর করার উপায় কি? খুশকি দূর করার ঔষধ, খুশকি দূর করার শ্যাম্পু কি? এই সকল বিষয়গুলো নিয়ে এখন চুলের খুশকি দূর করার ঘরোয়া ১৩টি উপায় নিম্নে আলোচনা করা হবে।
চিরতরে খুশকি দূর করার উপায় কি? এখন আপনি তা জানতে পারবেন। তাই খুশকি দূর করার সহজ উপায় হিসেবে এখন আমি খুশকির প্রতিকার ও প্রতিরোধে করণীয় উপায় গুলো আলোচনা করবো। চুলের খুশকি দূর করার ঘরোয়া উপায় গুলো যদি আপনি ফলো করেন, তাহলে আশা করি আপনি অনেক উপকার পাবেন।

পর্যাপ্ত পরিমান পানি পান করা

চুল পড়া ও খুশকি দূর করার উপায় হিসেবে আপনি পর্যাপ্ত পরিমান পানি পান করতে পারেন। শরীরে পর্যাপ্ত পানি থাকলে ত্বকের শুষ্কতা কম দেখা দেবে, ফলে আপনার চুলে খুশকিও কম দেখা দেবে।

মাথায় হালকা গরম তেল ব্যবহার

মেয়েদের মাথার খুশকি দূর করার উপায় কি? ছেলেদের চুলের খুশকি দূর করার উপায় কি? খুশকি থেকে মুক্তির উপায় হিসেবে আপনি মাথায় হালকা গরম তেল ব্যবহার করতে পারেন। আপনি যদি তেল মাথায় দেওয়ার পূর্বে হালকা গরম করে ব্যবহার করেন। তাহলে অনেক উপকার পাবেন।

তেল হালকা গরম করার পর মাথার ত্বকে ভালো করে মালিশ করে লাগাবেন। এর ফলে মাথার ত্বকের রক্ত সঞ্চালন অনেক বাড়বে ও চুলের গোড়া উন্মুক্ত হবে। এতে করে মাথার ত্বকে তেল প্রবেশ করবে ও পুষ্টি জোগাবে। ফলে চুল পড়া কমবে ও খুশকি দূর হবে।

নিম পাতার ব্যবহার

খুশকির সমস্যা দূর করার উপায় হিসেবে আপনি নিম পাতার ব্যবহার করতে পারেন। খুশকি দূর করার উপায় হিসেবে নিম পাতার ব্যবহার খুব কার্যকরী উপায়।

রাতে ১লিটার পানি চুলায় ফুটিয়ে এতে অন্ততঃ ৩০ - ৪০ টি পাতা এই ফুটন্ত গরম পানিতে ভিজিয়ে রাখুন। এরপর সকালে এই পানি দিয়ে চুল ভালো করে ধুয়ে নিন। এরপর চুল শুকানোর জন্য রোদে যাবেন না বা হেয়ার ড্রায়ার দিয়ে চুল শুকাবেন না।

এই পদ্ধতিটি যদি আপনি সপ্তাহে ২ - ৩ বার ব্যবহার করতে পারেন, তাহলে আপনার মাথার চুলকানি ও অস্বস্তি দূর হবে।  চিরতরে খুশকি দূর করার উপায় হিসেবে আপনি এই পদ্ধতিটি পালন করতে পারেন।

চুলে লেবুর রসের উপকারিতা

লেবুর রস চুলে দিলে কি হয়? চুলে লেবুর রসের উপকারিতা অনেক। কারণ এতে ভিটামিন-সি আছে। কারণ, ভিটামিন-সি একদিকে যেমন শরীর সুস্থ রাখে, তেমনি আবার চুলের যত্নেও এর ভূমিকা অনেক। লেবুর রস খুশকি দূর করতে কার্যকরী ভূমিকা পালন করে।

তাই লেবু দিয়ে খুশকি দূর করার উপায় টি খুব গুরুত্বপূর্ণ। লেবুর রস চুলে দিলে কি হয়? আশা করি বুঝতে পেরেছেন।

লেবু দিয়ে চুল সিল্কি করার উপায়

লেবু দিয়ে চুল সিল্কি করার উপায় টি খুব জনপ্রিয়। ২ টেবিল চামচ নারিকেল তেলের সাথে একটি লেবুর রস মিশিয়ে ফ্রিজে ঠান্ডা করে মাথার ত্বক ও চুলে লাগাতে হবে। এরপর চিরুনি দিয়ে আঁচড়ে ১৫/২০ মিনিট পর ঠান্ডা পানি দিয়ে ভালো করে ধুয়ে নিতে হবে। এভাবে নিয়মিত ব্যবাহার করলে চুল সিল্কি হবে ও খুশকি দূর হবে।

চুল পড়া কমাতে লেবুর রস ব্যবহার

চুল পড়া কমাতে লেবুর রস ব্যবহার করতে পারেন। আপনি যদি লেবুর রসের সাথে ভিনেগার ও লবণের মিশ্রণ চুলে ব্যবহার করেন। চুলের খুশকি কমার সাথে সাথে চুল পড়া কমে যাবে।

খুশকি দূর করার শ্যাম্পু

খুশকি দূর করার শ্যাম্পু বাংলাদেশ এর বাজারে অনেক আছে। তবে খুশকির জন্য কোন শ্যাম্পু ভালো কার্যকরী সেটা আপনাকে জানতে হবে। যাদের মাথায় খুশকি বেশি, তারা নিয়মিত শ্যাম্পু ব্যবাহর করতে পারেন। তবে খুশকির শ্যাম্পু প্রতিদিন ব্যবহারের পরে আপনাকে অবশ্যই কন্ডিশনার ব্যবহার করতে হবে।

ছেলেদের খুশকি দূর করার শ্যাম্পু, মেয়েদের মাথার খুশকি দূর করার শ্যাম্পু হিসেবে বাজারে অনেক ধরণের খুশকির শ্যাম্পু পাওয়া যায়। এর মধ্যে কিটোকোনাজল শ্যাম্পু খুশকি দূর করার ঔষধ হিসেবে ব্যবহার করা হয়।
এর মধ্যে আমার অভিজ্ঞতা থেকে বলছি, বাজারে যতগুলো খুশকি দূর করার শ্যাম্পু পাওয়া যায়, এর মধ্যে সিলেক্ট প্লাস (Select Plus+) শ্যাম্পুটি অসাধারণ। কারণ, খুশকি দূর করার ঔষধ হিসেবে ছোট-বড়, নারী-পুরুষ সকলেই এটি ব্যবহার করতে পারেন।

কিটোকোনাজল শ্যাম্পুর দাম কত? সিলেক্ট প্লাস শ্যাম্পুর দাম কত? এটি এখন সঠিক ভাবে বলা যাবে না। কারণ, বুঝতেই তো পারছেন বাংলাদেশের বাজারের অবস্থা। আজ এক দাম তো কাল সকালেই আরেক দাম।

খ্যাদ্যাভ্যাসে পরিবর্তন

খুশকির সমস্যা দূর করার উপায় হিসেবে খ্যাদ্যাভ্যাসে পরিবর্তন চুলের খুশকি নিয়ন্ত্রণ রাখার জন্য একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। খুশকির প্রধান কারণ মাথার শুষ্ক ত্বক ভালো রাখতে হলে আপনাকে প্রচুর পরিমাণে শাকসবজি খেতে হবে। এবং চর্বি জাতীয় খাবার ত্যাগ করতে হবে।

পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতা

যাদের মাথার ত্বকে এলার্জি আছে, তাদের মাথায় খুশকি বেশি দেখা যায়। চুলের খুশকি দূর করার ঘরোয়া উপায় হিসেবে চুলের পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতা খুব গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয়। যাদের চুল বেশি অপরিষ্কার থাকে, তাদের মাথায় বেশি খুশকি দেখা দেয়। তাই চুলের খুশকি দূর করতে চুল পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন রাখতে হবে।

ভেজা চুল তাড়াতাড়ি শুকিয়ে নেওয়া

খুশকির সমস্যা দূর করার উপায় হিসেবে আপনি ভেজা চুল তাড়াতাড়ি শুকিয়ে নিবেন। তাই গোসলের পর চুল ভালো করে মুছে নিতে হবে। তবে চুল শুকানোর জন্য হেয়ার ড্রায়ার ব্যবহার করা যাবে না। প্রয়োজনে আপনি ফ্যানের বাতাস দিয়ে ধীরে ধীরে চিরুনি দিয়ে আঁচড়ে চুল শুকাতে পারেন।

খুশকি দূর করতে টক দই ও লেবুর রসের মিশ্রণ

খুশকি দূর করার উপায় হিসেবে টক দই ও লেবুর রসের মিশ্রণ খুব ভালো একটি উপায়। এটি শুধু চুলের খুশকিই দূর করে না, বরং চুলের স্বাস্থ্য ভালো রাখতেও এই মিশ্রণ খুব গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে।

একটি লেবুর রসের সাথে পরিমান মতো টক দই নিয়ে মিশ্রণ তৈরি করে মাথার ত্বক ও চুলের গোড়ায় ভালো করে লাগাতে হবে। এরপর ২০ মিনিট পর শ্যাম্পু দিয়ে ভালো ধুয়ে নিতে হবে। এরপর চুল শুকিয়ে গেলে তাতে কিছুটা নাকিকেল তেল ব্যবহার করতে হবে।

এছাড়া চুল সিল্কি করতে টক দই ব্যবহার করতে পারেন। চুলের যত্নে ডিম ও টক দই এর মিশ্রণ ব্যবহার করতে পারেন। ত্বক ও চুলের যত্নে টক দই এর ব্যবহার খুব গুরুত্বপূর্ণ। চুল ঘন করতে টক দই ভালো কাজ করে।
পেঁয়াজের রস ব্যবহার

চুলের খুশকি দূর করার ঘরোয়া উপায় হিসেবে পিঁয়াজের রস ব্যবহার। দুইটি পিঁয়াজ ভালো ভাবে বেলেন্ডার করে তাতে এক মগ পানি মিশিয়ে নিন। এরপর এই মিশ্রণ দিয়ে মাথায় ভালো ভাবে মালিশ করুন। এই ভাবে সপ্তাহে অন্ততঃ দুইবার এটি ফলো করুন, আশা করি খুশকির সমস্যা থেকে মুক্তি পাবেন।

এলোভেরা দিয়ে খুশকি দূর করার উপায়

এলোভেরা চুলে দিলে কি হয়? খুশকি দূর করার উপায় হিসেবে এলোভেরা দিয়ে খুশকি দূর করার উপায় টি খুব জনপ্রিয়। সপ্তাহে দুইদিন এলোভেরার রস মাথার ত্বক ও সমস্ত চুলে ব্যবহার করুন। এরপর শ্যাম্পু দিয়ে চুল ধুয়ে নিন। এটি নিয়মিত কিছুদিন করুন। দেখবেন আপনার মাথায় আর খুশকি নেই।
এছাড়া এলোভেররার পেস্ট তৈরি করে আপনার মাথার ত্বকে ভালো ভাবে মালিশ করে লাগিয়ে দিন। এরপর শুকিয়ে গেলে আপনি হালকা গরম পানি দিয়ে চুল ও মাথা ধুয়ে ফেলুন। এটি প্রতি মাসে ২- ৪ বার ব্যবহার করলে খুশকি থেকে মুক্তি পাবেন।

শেষ কথা

খুশকি দূর করার উপায় ও চুলের খুশকি দূর করার ঘরোয়া ১৩টি উপায় নিয়ে বিস্তারিত আলোচানা  করেছি। আশা করি, খুশকির প্রতিকার ও প্রতিরোধে করণীয় উপায় গুলো বুঝতে পেরেছেন। তাই খুশকি দুর করার ঘরোয়া উপায় গুলো যদি আপনি ফলো করেন, তাহলে ইনশায়াল্লাহ অনেক উপকার পাবেন।


সব শেষে শেষ কথা হিসেবে একটি কথায় বলতে চাই, আশা করি, এই পোস্টটি আপনার কেমন লেগেছে? কমেন্ট বক্সে কমেন্ট করে জানাবেন। আর এই পোস্টটি পড়ে যদি আপনার ভালো লেগে থাকে, তাহলে অবশ্যই পোস্টটি শেয়ার করুন, যাতে অন্যেরাও পড়ে উপকৃত হতে পারে। ধন্যবাদ।(শওকত রাশেল)


পোস্ট ট্যাগঃ
খুশকি কি? খুশকি কেন হয়? মাথায় খুশকি হওয়ার কারণ, মাথার ত্বকে এলার্জি, চিরতরে খুশকি দূর করার উপায় কি? চুলের খুশকি দূর করার ঘরোয়া উপায়,  চুল পড়া ও খুশকি দূর করার উপায়, খুশকি থেকে মুক্তির উপায়, খুশকি দূর করার সহজ উপায়, খুশকির সমস্যা ও সমাধান, খুশকির সমস্যা দূর করার উপায়।

মেয়েদের মাথার খুশকি দূর করার উপায়, খুশকির প্রতিকার, খুশকির প্রতিকার ও প্রতিরোধে করণীয় উপায়, ছেলেদের চুলের খুশকি দূর করার উপায়,  খুশকি দূর করার ঔষধ, খুশকি দূর করার শ্যাম্পু বাংলাদেশ, লেবুর রস চুলে দিলে কি হয়? চুলে লেবুর রসের উপকারিতা, লেবু দিয়ে চুল সিল্কি করার উপায়, লেবু দিয়ে খুশকি দূর করার উপায়, এলোভেরা চুলে দিলে কি হয়? এলোভেরা দিয়ে খুশকি দূর করার উপায়।

এই পোস্টটি পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন

পূর্বের পোস্ট দেখুন পরবর্তী পোস্ট দেখুন
এই পোস্টে এখনো কেউ মন্তব্য করে নি
মন্তব্য করতে এখানে ক্লিক করুন

ওয়ানলাইফ আইটিরনীতিমালা মেনে কমেন্ট করুন। প্রতিটি কমেন্ট রিভিউ করা হয়।

comment url